গাইবান্ধার ফুলছড়িতে সপ্তম শ্রেনীর ছাত্রী ধর্ষন

নিজস্ব নিজস্ব

প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ৮:২৬ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১৪, ২০২০

ফুলছড়ি প্রতিনিধিঃ- গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের রসুলপুর দাদার বাড়ী হতে নানার বাড়ী কুন্দেরপাড়া যাওয়ার পথে ৭ম শ্রেনীতে পড়ুয়া এক ছাত্রী ধর্ষনের স্বীকার হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

ঘটনার বিবরন ও ভিকটিমের তথ্য মতে জানা যায়, গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের জনৈক ফুল মিয়ার স্কুল পড়ুয়া কন্যা (১৩) আজ শুক্রবার বিকাল আনুমানিক ৪ ঘটিকার দিকে তার দাদারবাড়ী রসুলপুর গ্রাম হতে কুন্দারপাড়া নানার বাড়ীতে যাওয়ার নৌকা ধরার জন্য খেয়া ঘাটের দিকে যাওয়ার পথে ওৎ পেতে বসে থাকা ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের ভাষারপাড়া (বালাসিঘাট) গ্রামের জনৈক সাজু মিয়ার পুত্র কালাম (২৫) তার আরো ৩ সহযোগীসহ মেয়েটিকে জোর পূর্বক ভুট্টা ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষন করে। পরে ধর্ষিতার আত্মচিৎকারে রসুলপুর গ্রামের মশিউর ও সবুজ এগিয়ে গিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার করে তাদের হেফাজতে নেয়।

উল্লেখ্য যে, ধর্ষক কালাম ইতিপূর্বেও একই ধরনের ঘটনায় বেশ কয়েকবার জেল ক্ষেটেছে ও চলতি মাসের ৫ তারিখে সে জেল থেকে জামিনে এসে আবারো এই কান্ড ঘটালেন। এলাকাবাসী এই ধর্ষকের কঠিন শাস্তি দাবী করেন।

এই ব্যাপারে ফুলছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ কাওসার আলী বলেন, আমি এই ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার করে ডাক্তারী পরীক্ষা সহ চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে প্রেরন করি। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলমান আছে।

অন্যদিকে ঘটনার খবর পেয়ে ফুলছড়ি উপজেলা পরিষদের সম্মানিত চেয়ারম্যান জনাব জি এম সেলিম পারভেজ ঘটনার দিন আজ শুক্রবার রাত ১১ ঘটিকা দিকে ধর্ষিতা মেয়েটিকে দেখতে কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের রসুলপুর গ্রামে উপস্থিত হন বলে খবর পাওয়া গেছে।